কোভিড-19 মহামারির সময় গর্ভবতী হলে আপনি কিভাবে  নিরাপদ থাকবেন (বর্তমান সুপারিশ)

0
167

একটি ওয়ার্ম ভার্চুয়াল হাগ্  পাঠিয়ে শুরু করা যাক  এবং এই সময়ের মধ্যে নিরাপদ থাকার জন্য কী করতে হবে তা জেনে নেওয়া যাক।

গর্ভাবস্থা এবং কোভিড-১৯ মহামারী সম্পর্কে দুটি তথ্য

  1. কেবলমাত্র আপনি গর্ভবতী বলে আপনি ভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত  হবেন না বা বেশি ভোগান্তি ভোগ করবেন না, তা নয়। এটি একটি আশ্চর্যজনক  খবর কারণ গর্ভাবস্থায় সাধারণত রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। যদি আপনার  ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, ফুসফুস, হার্ট ও কিডনি রোগের সমস্যা থাকে তাহলে  এর ঝুঁকি বেড়ে যায়।
  2. এখনও পর্যন্ত এমন কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি যে, আক্রান্ত মায়েদের গর্ভে থাকা শিশুদের মধ্যে এই সংক্রমণ ছড়িয়েছে।

কোভিড-19 সঙ্ক্রমণ থেকে বাঁচার উপায়

  1. সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা-

ধরে নিন যে, সবাই আক্রান্ত এবং সবার থেকে দূরে থাকুন।

  • বাড়িতেই থাকুন।
  • বাড়ি থেকে কাজ করুন
  • পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করার সময় অন্তত এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখুন, বিশেষ করে যারা বাড়ির বাইরে যাতায়াত করে।
  • গৃহপরিচারিকা ও অন্যান্য কর্মচারীদের বাড়িতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।
  • যতটা সম্ভব আলাদা ঘরে থাকুন।
  • সম্ভব হলে একই টয়লেট শেয়ার করবেন না।
  1. ফোমাইট শেয়ার করা এড়িয়ে চলুন –
  • আপনার সাবান টুথপেস্ট ইত্যাদি শেয়ার করবেন না।
  • তোয়ালে, বিছানার চাদর ও বালিশ শেয়ার করবেন না।
  • আপনার জন্যে আলাদা করে চামচ, প্লেট ও গ্লাস রাখুন।
  1. ফোমাইট শেয়ার করা এড়িয়ে চলুন –
  • আপনার সাবান টুথপেস্ট ইত্যাদি শেয়ার করবেন না।
  • তোয়ালে, বিছানার চাদর ও বালিশ শেয়ার করবেন না।
  • আপনার জন্যে আলাদা করে চামচ, প্লেট ও গ্লাস রাখুন।
  1. ঘনঘন হাত ধুতে থাকুন –

  1. আপনার মুখ স্পর্শ করবেন না –
  2. মাস্ক পরুন-
  • তিনটে লেয়ারের ঘরে তৈরি তুলোর  মাস্ক ব্যবহার করুন
  • মাস্ক বারবার ঠিক করতে থাকবেন না
  • প্রতি 4 ঘণ্টা অন্তর মাস্ক পরিবর্তন করুন।
  • সাবান ও জলে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নিন।
  • মাস্কের বাইরের অংশ স্পর্শ করবেন না।
  • মাস্ক পরিবর্তন করার পরে আপনার হাত ধুয়ে নিন।
  1. শ্বাসযন্ত্রের স্বাস্থ্যবিধি –

টিস্যু তৈরী রাখুন, কাশি বা হাঁচি পেলে ব্যবহার করুন  এবং অবিলম্বে সেটিকে ডাস্ট  বিনে ফেলে দিন এবং হাত ধুয়ে ফেলুন।

নাহলে  – আপনি কনুইতে হাঁচি করুন।

ছবির উৎস: <a href=”https://www.freepik.com/free-photos-vectors/water”>Water photo created by freepik – www.freepik.com</a>

  1. পৃষ্ঠতল জীবাণুমুক্ত করুন –
  • পরিষ্কার করতে 70% অ্যালকোহলযুক্ত দ্রবণ ব্যবহার করুন।
  • মুদিখানার দোকান থেকে জিনিস নেওয়া এড়িয়ে চলুন।
  1. বাড়িতেই রান্না করা খাবার খান।
  • একটি সুষম খাদ্য খান
  • কোনও খাবার বেশি খাবেন না এই আশায় যে এটি আপনাকে সংক্রমণ থেকে রক্ষা করবে।

  1. আপনার ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা না করে কোনো ওষুধ খাবেন না-

কোভিড-19 সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে পারে এমন ওষুধ সম্পর্কে গুজবে বিশ্বাস  করবেন না। গর্ভাবস্থায় এগুলো বিপদ ডেকে আনতে পারে।

  1. ধর্মীয়/সামাজিক সমাবেশ এড়িয়ে চলুন-

7তম  এবং 9তম মাসের অনুষ্ঠান এবং বেবি শাওয়ার প্রোগ্রামটি  অনলাইনে করুন।

  1. ডাক্তারের সাথে অনলাইনে পরামর্শ করুন   –

অনলাইনে পরামর্শ নেওয়া যায় কি না, তা চিকিৎসককে জিজ্ঞেস করুন। আলট্রাসাউন্ড স্ক্যান এবং অন্যান্য পরীক্ষাগুলি অপরিহার্য কিন্তু সেগুলি করার আগে আপনার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ  করুন।

  1. কোভিড-19-এর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের সম্পর্কে রিপোর্ট করুন।

সরকারি সূত্রের খবর,. ভারতের ঘনিষ্ঠ / সরাসরি যোগাযোগের  সংজ্ঞা  হল – একই ঘরে বসবাস করা, যে কোনও পরিবহনে একসঙ্গে ভ্রমণ করা, একই ঘরে কাজ করা সবাইকে

প্রসবের আগে ও প্রসবের সময় অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে

  1. ভর্তির আগে কোভিড-19 পরীক্ষা করাতে হবে কি না, তা হাসপাতালকে জিজ্ঞেস করুন। যদি হ্যাঁ হয়-তাহলে নির্ধারিত তারিখের এক সপ্তাহ আগে পরীক্ষাটি করিয়ে নিন যাতে ভর্তি হওয়ার সময় আপনি কোন জটিলতার সম্মুখীন না হন ।
  2. আপনার অনাক্রম্যতা বাড়াতে ডেলিভারির পর্যন্ত সপ্তাহগুলিতে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ স্বাস্থ্যকর খাবার খান। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট একটি তাজা ফল এবং শাকসবজি এবং পুরো শস্যে  উপস্থিত থাকে। স্থানীয় কারোর কাছ দিয়ে কিনুন  এবং তাজা ফল এবং শাক-সবজি  খান। প্যাকেটজাত খাবার এড়িয়ে চলুন। আপনার খাবারের জন্য হালদি, জিরা, ধনিয়া, লহসুন ব্যবহার করুন। তারা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করে।
  3. ঠান্ডা জল খাওয়া  এড়িয়ে চলুন। গরম জল খাওয়া শুরু করুন । নিজেকে সর্বদা গরম  এবং ভালোভাবে  আচ্ছাদিত রাখুন।
  4. এ/সি পরিবেশ এড়িয়ে চলুন এবং তাজা বাতাস এবং সূর্যের আলো গ্রহণ  করুন। বায়ু এবং অতিবেগুনী রশ্মি আপনাকে সংক্রমণ  থেকে রক্ষা করে।
  5. বাড়ির ভিতরে স্ট্রেচিং এবং হাঁটাহাঁটি করুন। সক্রিয় ব্যক্তিদের মধ্যে আরও রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বেশি হয় ।
  6. গভীর শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম করুন যা আপনি আপনার প্রসবপূর্ব ক্লাসে শিখেছেন। ফুসফুসের গভীরতম স্থানে বাতাস প্রবেশ করাই ফুসফুসকে সুস্থ রাখার একমাত্র উপায়। আপনার সন্তানকে সফলভাবে ডেলিভারি করার জন্য গভীর শ্বাস নেওয়াও আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
  7. স্ট্রেস কাটিয়ে ওঠার জন্য মন্ত্রোচ্চারণ দারুণ একটি উপায়। দিনের বেলা কিছু জপ করুন।

কীভাবে আইসোলেশনের চাপ থেকে নিরাপদ থাকা যায়

ছবির উৎস: <a href=”https://www.freepik.com/free-photos-vectors/people”>people photo created by yanalya – www.freepik.com</a>

কীভাবে আইসোলেশনের চাপ থেকে নিরাপদ থাকা যায়

  1. বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে অনলাইন  ভাববিনিময় করুন।
  2. পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুমান
  3. প্রতিনিয়ত ঘর পরিষ্কার করবেন না
  4. শিশুর জামাকাপড় এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র অনলাইনে অর্ডার করুন। চাপমুক্ত কেনাকাটা উপভোগ করুন।
  5. আপনার বাড়িতে যদি কেউ ধূম্ৰপান করে সিগারেটের ধোঁয়া এড়িয়ে চলুন।

কিভাবে ডেলিভারির জন্য  প্রস্তুতি নিতে  হবে

  1. শান্ত থাকুন-

এখনও পর্যন্ত কোভিড-19 রোগের ক্ষেত্রে শ্রম প্ররোচিত করার বা  নির্দিষ্টভাবে  ডেলিভারি করার কোনো সুপারিশ নেই।

  1. আপনার শিশুর গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করুন
  2. আসল প্রসব বেদনা সম্পর্কে জানতে একটি অনলাইন প্রসবপূর্ব ক্লাসে উপস্থিত হোন।
  3. হাসপাতালের ব্যাগে পর্যাপ্ত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা প্রোডাক্ট ও মাস্ক রাখুন।

দুশ্চিন্তা করে কোনো লাভ নেই । পদক্ষেপ নিন।  আপডেট থাকুন এবং সর্বশেষ, সরকারি সুপারিশ অনুসরণ করুন এবং নিরাপদ থাকুন।

লিখেছেন

ডাঃ দেবমিতা দত্ত এমবিবিএস, এমডি

ডাঃ দেবমিতা দত্ত একজন অনুশীলনকারী  ডাক্তার, একজন প্যারেন্টিং কনসালটেন্ট এবং WPA whatparentsask.com ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতা – তিনি ব্যাঙ্গালোরে থাকেন  এবং স্কুল এবং কর্পোরেট সংস্থাগুলিতে প্যারেন্টিং ওয়ার্কশপ পরিচালনা করেন। তিনি প্রত্যাশিত পিতামাতার জন্য প্রসবপূর্ব ক্লাস এবং নতুন পিতামাতার জন্য শিশু যত্নের ক্লাস পরিচালনা করেন

রেফারেন্স:

https://www.fogsi.org/the-draft-version-1-fogsi_gcpr_on_pregnancy_with_covid_19_infection/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here