এটি হল আপনার প্রসবোত্তর ওজন কমানোর জন্য চূড়ান্ত চিট শীট।

0
365

shutterstock_332045687

এমন কে আছে যে তার বেবি বাম্প দেখাতে পছন্দ করে না? >সেলিব্রেটি থেকে শুরু করে সব বয়সের এবং শ্রেণীর মহিলারাই করে। আমরা নিশ্চিত যে আপনি অবশ্যই সেই সময়টা উপভোগ করেছেন! কিন্তু এই সুন্দর প্রক্রিয়াটির দুর্ভাগ্যজনক অংশ (অন্তত এটিই অনেক মহিলা মনে করেন) হল যেবাচ্চা হয়েও গিয়েছে কিন্তু তা সত্ত্বেও বাম্প রয়ে গেছে! *আমরা জানি এটা কষ্টকর।* এরপর যা হয় ডায়েট,রোগ হওয়ার ট্যাবলেট এবং জোরালো ব্যায়াম, যা কখনো কখনো বুকের দুধ খাওয়ানো, দুর্বলতা এবং সময় ও শক্তির অভাবের কারণেও সম্ভব হয় না। তাই, আমরা আপনার জীবনকে আরও সহজ করার চিন্তাভাবনা করেছি। আমরা ওজন কমানোর জন্য ছোট ছোট কৌশল সংগ্রহ করেছি।

  1. আপনার জলের বোতলটি কোথায়?

আহা! আপনার জলের  বোতল সব সময় হাতের কাছে রাখুন?চমৎকার !এখন একদম নিখুঁত হওয়া বন্ধ করুন।আরে ঠাট্টা করছি! কিন্তু সত্যি কথা বলতে কী, আপনার জলের বোতলটিকে কল্পনা করুন একজন জিম প্রশিক্ষকের মতো, যিনি আপনাকে হাঁটতে ও দৌড়াতে সাহায্য  করে। সুতরাং, পরের বার নিশ্চিত হোন যে যদি আপনি শোবার ঘরে থাকেন , তাহলে আপনার জলের বোতলটিও ঘরের মধ্যে  আছে যাতে আপনি এটি নিতে  হেঁটে যেতে পারেন  এবং আপনার তৃষ্ণা নিবারণ করতে পারেন। আপনি বিরক্ত হতে পারেন কিন্তু যখন আপনি ওজনের মাপতে উঠবেন তখন আপনি অবশ্যই আপনার নতুন জিম প্রশিক্ষককে ধন্যবাদ জানাবেন।

  1. রিল লাইফ: অফ। রিয়েল লাইফ: অন

গবেষণায় দেখা গেছে  যে টিভি দেখার সময় আমরা প্রায়শই  40 শতাংশ বেশি খেয়ে ফেলি এবং বিভ্রান্ত হওয়ার সময় আমাদের  জাঙ্ক ফুড খাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।খুব বেশি পরিশ্রম ছাড়াই ওজন কমাতে চান? লাঞ্চ এবং ডিনারের সময় আপনার টিভি, কম্পিউটার বা স্মার্ট ফোন বন্ধ করুন এবং শুধুমাত্র আপনার খাবারের দিকে মনোনিবেশ করুন। আমরা এটাও জানি যেউইকেন্ডে, যখন স্বামী বাড়িতে থাকে, তখন সময় বেশ আরামদায়ক হতে পারে! কিন্তু আপনি কি সপ্তাহান্তে টিভি দেখছেন? এটা শুধু আপনার চোখের জন্যই ক্ষতিকর তাই নয় আপনার নিতম্বের জন্যও ক্ষতিকর কারণ আমরা বুঝতে পারি না যে আমরা আমাদের নিতম্বকে খুব বেশি বিশ্রাম দিয়ে ফেলছি। সুতরাং, দাঁড়িয়ে টিভি দেখুন, এবং চলতে থাকুন (অবশ্যই, আপনি ক্লান্ত হয়ে পড়লে বিনা দ্বিধায় বিশ্রাম নিন)। এইভাবে আপনি যত বেশি দেখবেন, ততই আপনার ওজন  কমবে!

  1. প্রথম চারটি জিনিস অনেক পার্থক্য তৈরি করতে পারে।

এটি  খুবই স্বাভাবিক যে একজন স্তন্যপান করানো মা হিসেবে আপনি প্রায়শই ক্ষুধার্ত হবেন। আমরা যখন খুব ক্ষুধার্ত থাকি তখন আমরা সত্যিই বিরতি না নিয়ে খাওয়ার প্রবণতা করি (কখনও কখনও মহাদেবনের ব্রেথলেসের মতো)। কিন্তু এখানে আপনার মন এবং পেটকে ট্রিক করারও উপায় আছে। আপনার প্রথম কয়েকটি কামড় দ্রুততার সাথে নেওয়ার পরিবর্তে ধীরে ধীরে নিন । খাবার উপভোগ করুন। খাবার সঠিকভাবে চিবিয়ে খাবেন (আয়ুর্বেদ অনুযায়ী, আমাদের খাবার অবশ্যই 33 বার চিবানো উচিত)। এটি আমাদের মস্তিষ্ক এবং পাকস্থলীতে একটি বার্তা পাঠায় যে আমরা ক্ষুধার্ত নই এবং আমরা অনাহারে মারা যাওয়ার সময় যতটা না খেয়ে থাকি ততটা খাব না।

  1. নীল কেন আপনার প্রিয় রঙ হতে চলেছে?

আপনি কি কখনও ভেবে দেখেছেন  ফাস্ট ফুড ব্র্যান্ডগুলো লাল এবং হলুদের মতো রঙের ব্যাপক ব্যবহার করে কেন? রঙের মনোবিজ্ঞান ব্যাখ্যা করে যে রঙগুলি আমাদের মেজাজ, আচরণ এবং আমাদের পছন্দগুলিকে অনেকাংশে প্রভাবিত করতে পারে। লাল এবং হলুদ আমাদেরকে অনেক বেশি খেতে উদ্দীপিত করে। গবেষণায় দেখা গেছে যে নীল প্লেট থেকে খাওয়া আসলে আপনার ক্ষুধা কমাতে পারে। নীল রং ভালোবাসেন না? এটি ট্রাই করুন, এটি খুব শীঘ্রই আপনার প্রিয় রঙে পরিণত হবে। আমাদের বিশ্বাস করুন: এটি একটি ম্যাজিকের মতো কাজ করবে।

  1. আপনার শিশুর সবথেকে প্রিয় বন্ধু হয়ে উঠুন।

কর্মঠ মা হয়ে উঠুন। আপনার বাচ্চাদের সাথে খেলুন – হামাগুড়ি দিন, লাফ দিন, নাচুন এবং গান করুন! তাদের খেলনা নিতে ভুলবেন না এবং তারপর সেগুলিই পুনরাবৃত্তি করুন.

তাই, ফ্যাড ডায়েট এবং কঠোর ব্যায়ামের জন্য নিজেকে কষ্ট দেবেন না।  চারপাশে একবার তাকান, সব ঠিক আছে। ওজন কমানোর জন্য আপনার নিজস্ব কিছু মজার আইডিয়া থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানান।

রেফারেন্স সাইট: http://www.today.com/health/small-tips-big-weight-loss-results-1D80232963

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here